তাফসীর কি মিথ্যা হতে পারে

তাফসীর কি মিথ্যা হতে পারে-ভূমিকা

বর্তমানে কোন কোন বক্তার বক্ততার অংশই কোরআন ও ছহীহ সাথে সাংঘর্ষিক। কারণ তারা তদন্ত ছাড়াই শরী'য়াতের বিপন্ন বিভিন্ন বিষয় প্রচার করেন। আমরা জানা মতে, শতকরা ৯৫ জন বক্তা যাচাই-বাছাই ছাড়া বক্তৃতা করেন। এ ধরণর প্রচারে বড় ধরনের দুটি ক্ষতি রয়েছে।(১) এতে আল্লাহু এবং আল্লাহ-রসূলের নামে প্রচার হচ্ছে, যাতে জনগণ ও সঠিক ধর্ম থেকে বিচু‍্যদ হচ্ছে(২) এমন বক্তার পরকাল বড় ভয়াবহ। নবী করিম (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেন, কোন ব্যক্তি  যদি আমার উপর মিথ্যারোপ করে, তার পরিণাম জাইহান্নাম'(বুখারী মিশকাত হা/১৪৯)। এ দেশের তাফসির মাহফিলে যারা তাফসীর করছেন, তাদের শতকরা ৯৮ জনি মুফাসসির নন। কারণ তাফসীর করার জন্য অনেক  ধরনের বিদ্যার্ প্রয়োজন । সাথে সাথে তাহক্বীক করে তাফসির করা যরূরী। কারণ তাফসির গ্রন্থগুলি জাল ও যঈফ হাদিস এবং
 বানওয়াট কাহিনী দ্বারা পরিপূর্ণ। এ থেকে  সকলের সতর্ক উচিৎ। কেননা এতে যেমন দ্বীনের ক্ষতি হয়, এমনি বক্তা ও শ্রোতার পরকাল ধ্বংস হয়।
বহুদিন থেকে ভাবছিলাম যে, জনগণকে মিথ্যা তাফসীর সম্পর্কে সচেতন করার জন্য একটি ব্লগ প্রকাশিত হল-ফালিল্লাহিল হামদ।
সকলকে সালাম জানিয়ে বিদায়,,,,
বিষয়: বিবিধ........
Facebook page

মন্তব্য

এই ব্লগটি থেকে জনপ্রিয় পোস্টগুলি

আমার প্রথম ব্লগ পোস্ট